করোনা ভাইরাস কি?

করোনা ভাইরাস এর আসল পরিচয় কোভিড-১৯। কোভিড-১৯ যা আসলে করোনা ভাইরাস নামে পরিচিত, ধারণা করা হয় এটি আসলে একটি ছোঁয়াচে রোগ। এশিয়া মহাদেশ সহ এই ভাইরাস টি দ্রুত বিস্তার লাভ করে ফেলেছে। আবিষ্কার হয়নি কোনো প্রতিষেধক। ফলে দ্রুত বিস্তার লাভ করা করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে যাবার সম্ভাবনা অনেক বেশি। এই পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা অনেক বেশি, প্রতিনিয়ত মারা যাওয়া সহ সুস্থ হয়ে ঘরে ফিরে আসার মতো সম্ভাবনা ও রয়েছে। শুধুমাত্র সচেতনতা ছাড়া আর কোনো উপায়েই এই রোগের বিস্তার লাভ অথবা সুস্থ্য থাকা সম্ভব নয়।

করোনা ভাইরাসে সারা বিশ্ব এবং বাংলাদেশ এর অবস্থা?

করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। বিশ্বে এর প্রভাব অনেক বেশি। প্রতিনিয়ত আক্রান্ত যেমন বেড়ে যাচ্ছে, মারা যাওয়ার সংখ্যাটাও কম নয়। বিশ্বের যে দেশগুলোতে নতুন করে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে যাচ্ছে, তাদের পরিস্থিতির উন্নতি হয়নি। প্রবাসীদের কে তাদের নিজ নিজ দেশে ফিরিয়ে দেয়া হচ্ছে যদি তাদের মধ্যে কোনো সমস্যা দেখা দিচ্ছে, কোনো কোনো দেশে বিশেষ প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরে বের হতে নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়েছে, করা হচ্ছে জরিমানাও। এরই মধ্যে প্রথম করোনা ভাইরাস ধরা পড়া দেশগুলোতে আক্রান্তের সংখ্যা কমিয়ে আনতে সক্ষম হয়েছে অনেকটাই, প্রধান কারণ দেশবাসীর জনসচেনতা।

বাংলাদেশে করোনা নিয়ে কোনো জটিলতা ছিল না, প্রবাসী বাঙালিরা দেশে ফিরে আসার পর কিছু নিয়ম আর সচেতনতার অভাবেই দেশে করোনা ছড়িয়ে পড়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। বাংলাদেশে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৩৯ জন, সুস্থ হয়ে নিজের ঘরে ফিরে গিয়েছে ৪ জন, মারা যাওয়ার সংখ্যা ও রয়েছে। দ্বিতীয় সপ্তাহে পৌঁছানোর পর দেশে জনসচেতনতা বেড়ে যাচ্ছে বলা যায়, সচেতনতা বাড়ানোর জন্য নেয়া হচ্ছে অনেক পদক্ষেপ। করোনা ভাইরাসের ভয়াবহতা, করণীয় বিষয় এগুলো নিয়ে ছিলো অনেক কৌতুহল। দেশে করোনা ঠেকাতে ছিলো না সেরকম কোনো ব্যবস্থা, তবে বিদেশ থেকে ডাক্তার সহ করোনা পরীক্ষা করার অনেক কিট এবং দ্রব্য নিয়ে আসা হয়েছে । অন্যান্য দেশের তুলনায় বাংলাদেশে আক্রান্তের সংখ্যা অনেক কম এবং সচেতনতা বেড়ে যাচ্ছে বলে এই সংখ্যা আরো কমিয়ে নিয়ে আসা সম্ভব।

আদর্শ জীবনসঙ্গী খুঁজতে

করোনা ভাইরাসের লক্ষণ?

  • শুকনো কাশি
  • গলা ব্যথা করা
  • শ্বাস কষ্ট হওয়া

করোনা ভাইরাসের জন্য এই ৩টি প্রধান কারণ, এছাড়াও –

  • শরীরে ব্যথা অনুভব হতে পারে
  • ঘন ঘন জ্বর থাকতে পারে
  • ডায়রিয়া হতে পারে

শরীরে ব্যথা, জ্বর, অথবা ডায়রিয়া জনিত কারণে হাসপাতালে যাওয়ার দরকার নেই, এগুলো করোনা ভাইরাসের মূল লক্ষণ নয়।

ভয়াবহ করোনা ভাইরাস থেকে চিকিৎসা সুরক্ষার উপায় কী?

বিশেষ কোনো ভ্যাকসিন আবিষ্কার না হওয়ায় করোনা ভাইরাসের সুনির্দিষ্ট কোনো চিকিৎসা নেই। তবে নিজের সুরক্ষা ও অন্যের সুরক্ষার জন্য করণীয় অনেক কাজ, সচেতনতা ও সমাধান রয়েছে যা করোনা মোকাবেলায় সাহায্য করতে পারে।

  • হাঁচি কাশির সময় অবশ্যই হাতে টিসু অথবা কাপড় রাখা
  • প্রতি ১৫-২০ মিনিট পর পর হাত সাবান দিয়ে অন্তত ২০ সেকেন্ড ভালো করে ধুয়ে নেয়া
  • সুস্থ থাকতে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা
  • খাওয়ার আগে ও পরে ভালো করে হাত সাবান দিয়ে ধুয়ে নেয়া
  • অসুস্থ ব্যক্তির সেবা করার আগে পরে হাত ধুয়ে নেয়া
  • জীবাণুনাশক কোনো লিকুইড ব্যবহার করা
  • পরিবারের সবার সুস্থতায় পরিস্কার-পরিচ্ছন্ন থাকা
  • বিশেষ প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরে না যাওয়া
  • বাইরে থেকে এসে অবশ্যই আগে পরিস্কার হয়ে পরে ঘরে প্রবেশ করা উচিত

হ্যান্ড গ্লাভস অথবা মাস্ক এই ভাইরাস ঠেকাতে সক্ষম নয়, তাই সংক্রমণ কমানোর জন্য নিয়মিত হাত ধোয়া, পরিষ্কার থাকা, ও আক্রান্ত ব্যক্তির সাথে মেলামেশা না করা সর্বোত্তম উপায়।

করোনা ভাইরাস থেকে সতর্ক থাকতে আমাদের করনীয়?

শিশু কিংবা বৃদ্ধ হলে আক্রান্ত হবার সম্ভাবনা থেকে যায় কারণ তাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম থাকে। তবে সতর্ক থেকে করোনা ভাইরাস ঠেকানো সম্ভব না হলেও আক্রান্ত হবার সম্ভাবনা একদম কমিয়ে আনা সম্ভব।

  • কোনো কিছু স্পর্শ করার পূর্বে ও পরে হাত ধুয়ে নিতে হবে
  • বিশেষ প্রয়োজন ছাড়া বাজারে যাওয়ার দরকার নেই
  • বাইরে থেকে বাসায় এসে প্রথমে হাত ধুয়ে পরে প্রবেশ করা উচিত
  • ভিড় আছে এমন জায়গা পরিহার করা উচিত
  • নিজেকে ও পরিবার কে সুস্থ রাখতে সব সময় পরিষ্কার থাকা উচিত
  • ঘরে বসেই জীবাণুনাশক বানিয়ে বাসার সব কিছু জীবাণু মুক্ত করে নিতে হবে
  • জীবাণুনাশক বানানোর জন্য ২০ লিটার পানিতে ১ টেবিল চামচ ব্লিচিং পাউডার দিয়ে মিশ্রিত দ্রবণ ঢেকে রাখতে হবে, মিশ্রিত হয়ে গেলে ঘরের আসবাবপত্র, পায়ের জুতো সহ গাড়ি তেও স্প্রে করে জীবাণুমুক্ত করে নেয়া যাবে

উপরের সব বিষয় গুলোর উপর একটু ভালো করে নজর দিলেই দেখা যাচ্ছে, পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন থাকার বিকল্প কিছু আসলেই নেই। হাত ধুয়ে নিজেকে পরিষ্কার রাখতে হবে আর সচেতনতা বাড়িয়ে তুলতে হবে যাতে করে একটু ভুলের জন্য বা অসচেতনতার জন্য করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হতে না হয়।

করোনা এর আপডেট জানতে ভিসিট করুন==>> করোনা ইনফো

বিয়ে সংক্রান্ত যেকোনো তথ্য, সেবা, এবং পরামর্শ পেতে যোগাযোগ করুন তাসলিমা ম্যারেজ মিডিয়ার সাথে।
কল করুনঃ+880-1972-006691 অথবা +88-01782-006615 এ।
আমাদের মেইল করুন taslima55bd@gmail.com

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here