Rate this post

বিয়ে নিয়ে নারীদের চিন্তার শেষ থাকে না। কারণ জীিছেবন সঙ্গী কেমন হবে তা অনেক বড় চিন্তার বিষয়ই। বিবাহিত জীবনে স্বামী-স্ত্রী, দুপক্ষেরই সহযোগিতা প্রয়োজন।

তবে কোন ধরনের পুরুষ স্বামী হিসেবে ভালো হবে এবং কারা হবে মন্দ তা বুঝে ওঠা সত্যিই খুব কঠিন। তবে জানা প্রয়োজন বিবাহের ক্ষেত্রে যে পাঁচ ধরনের পুরুষকে কখনোই বিয়ে করা উচিত নয়। চলুন তবে জেনে নেয়া যাক, স্বামী হিসেবে বাজে এমন পাঁচ ধরনের পুরুষ সম্পর্কে-

১. বিজ্ঞানীদের বহু গবেষণায় দেখা গেছে, পৃথিবীর বেশিরভাগ নারীই খারাপ পুরুষের প্রতি আকৃষ্ট হয় বেশি। পরে এর জন্য তাকে অনেক কষ্টও পেতে হয়। এসব ছেলেদের কিছু বিশেষ গুণ থাকে। যেমন- মিষ্টি কথা বলার জাদু, অতিরিক্ত যত্ন নেয়া ইত্যাদি উপায়ে তারা খুব সহজে একটি মেয়ের মন জয় করে ফেলে। যা করতে একটি ভদ্র ছেলের অনেক দিন সময় লেগে যায়।

ফলে সহজেই নারীরা একটি খারাপ ছেলের ওপর তীব্র আকর্ষণ অনুভব করে। অনেকেই আবার মনে করেন যে, হয়তো সে পরে ভালো হয়ে যাবে। কিন্তু এরূপ আশা নিয়ে কখনোই বিয়ে করা উচিত নয়। কারণ এরা কখনোই ভালো হবে না। এদের খারাপ স্বভাবও কোনদিন বদলাবে না। উল্টো এই ভুলের জন্য আপনাকেই সারা জীবন কষ্ট পেতে হবে।

২. অতিরিক্ত আত্মকেন্দ্রিক পুরুষদের সঙ্গে বিবাহ করা একদমই ঠিক না। এতে বিবাহিত জীবন সুখের হয় না। এরা নিজের রূপ-গুণ থেকে শুরু করে সবকিছুরই গুণগান সবসময় শোনাতে থাকে। সবসময়ই নিজের গুণগান করতে থাকে, নিজের প্রশংসায় নিজেই পঞ্চমুখ হয়ে থাকে।

আদর্শ জীবনসঙ্গী খুঁজতে

এরা নিজেদের নিয়ে এতটাই ব্যস্ত থাকে যে, নিজেরা ছাড়াও পৃথিবীতে আরো সবাই আছে সেটা ভুলে যায়। এমন মানুষের সঙ্গে বেশিক্ষণ কথা বলাও সম্ভব হয়ে ওঠে না। এমন পুরুষকে যদি বিয়ে করা হয় তাহলে হয়তো তারা কখনোই আপনার দিকে নজর দেবে না। যার ফলে বিবাহিত জীবনে কোনদিনই সুখ আসবে না।

৩. অতিরিক্ত মা ঘেঁষা ছেলেরা মানুষ হিসেবে ভালো হলেও স্বামী হিসেবে মোটেই সুবিধার নয়। যদি না তার ন্যায় অন্যায় জ্ঞান প্রবল থাকে। কারণ মায়ের প্রতি শ্রদ্ধা, মমতা প্রদর্শন করতে গিয়ে সে স্ত্রীর প্রতি কর্তব্য পালন করতে পারে না। অন্যায় হতে দেখলেও মেনে নেয় মাথা নিচু করে।

এদের সব কাজেই তাদের মায়েরা যেনো জড়িয়ে থাকে। তাই এরা কখনোই স্ত্রীকে সাপোর্ট করতে পারেনা। মা কোনো অন্যায় করলেও সেটাকে মুখ বুজে মেনে নেয়, যেটা বৈবাহিক জীবনের পক্ষে একদমই ভালো নয়। তাই চেষ্টা করুন বিবাহের ক্ষেত্রে এইরকম পুরুষকে এড়িয়ে যেতে।

৪. আমি অনেক কিছু জানি, আমি তোমার থেকে বেশি জানি এই ধরনের ভাব ধরা পুরুষদের থেকে একশ হাত দূরে থাকুন। কারণ এই ধরনের পুরুষেরা নিজেদের মতামতকেই বেশি প্রাধান্য দিয়ে থাকে। এরূপ পুরুষেরা নিজেদের জ্ঞানী বলে মনে করে।

এরা সব কাজেই নিজেদের মতামতকেই সর্বশ্রেষ্ঠ বলে মনে করে। কখনো স্ত্রীর মতামত নেয়ার প্রয়োজনও অনুভব করে না। এমন পুরুষেরা স্বামী হিসেবে একদমই ভালো হয় না। তাই চেষ্টা করুন এমন পুরুষদের সঙ্গ এড়িয়ে যেতে।

৫. এমন অনেক পুরুষ আছে যারা সবাইকে নিজের নিয়ন্ত্রণে রাখতে চায়। সে মা হোক বা স্ত্রী বা বাড়ির অন্য কোনো সদস্য। এমন পুরুষদের সঙ্গে যেসব নারীরা যারা আধুনিক জীবনের সঙ্গে অতটা অভ্যস্ত নয়, কেবলমাত্র তারাই মানিয়ে নিতে পারবে।

প্রতিটি কাজে বাঁধা এবং নিজের আওতাধীন রাখতে চাওয়াই এই ধরনের পুরুষের মূল লক্ষ্য। যা আধুনিক এবং প্রগতিশীলা নারীরা একেবারেই সহ্য করতে পারেন না। সুতরাং সতর্ক থাকুন, বিয়ের আগে ভেবে নিন, বুঝে নিন তারপর বিয়ে করুন।

চেষ্টা করুণ এই পাঁচ ধরনের পুরুষকে একটু এড়িয়ে চলতে। তাহলেই আপনার সাংসারিক জীবন হবে সুখের।

বিয়ে সংক্রান্ত যেকোনো তথ্য, সেবা, এবং পরামর্শ পেতে যোগাযোগ করুন তাসলিমা ম্যারেজ মিডিয়ার সাথে।
কল করুনঃ+880-1972-006691 অথবা +88-01782-006615 এ।
আমাদের মেইল করুন taslima55bd@gmail.com

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here